৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানের প্রথম শহীদ আলাউদ্দিনকে 'কেউ মনে রাখেনি ' |

মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ১১:১৮ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ভয়েস অব বরিশালকে জানাতে ই-মেইল করুন- inbox.voiceofbarishal@gmail.com অথবা hmhalelbsl@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।*** প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে!! বরিশাল বিভাগের সমস্ত জেলা,উপজেলা,বরিশাল মহানগরীর ৩০টি ওয়ার্ড ও ক্যাম্পাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! ফোন: ০১৭৬৩৬৫৩২৮৩




৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানের প্রথম শহীদ আলাউদ্দিনকে ‘কেউ মনে রাখেনি ‘

৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানের প্রথম শহীদ আলাউদ্দিনকে ‘কেউ মনে রাখেনি ‘




অনলাইন ডেস্ক:নীরবেই কেটে গলে ’৬৯ এর গণঅভ্যুত্থানে পটুয়াখালীর প্রথম শহীদ আলাউদ্দিনের ৫০তম মৃত্যুবার্ষিকী। বরাবরে মতই এ দিবসটি পালনে এগিয়ে আসেনি জেলা, উপজেলা প্রশাসন কিংবা কোন সামাজিক, রাজনৈতিক সংগঠন। কোন আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই কেটে গেছে এ দিনটি। তবে প্রতি বছরের ন্যায় গ্রামের বাড়িতে তাঁর সহপাঠিরা এ দিনটিতে বিশেষ দোয়া মোনাজাতের আয়োজন করেছে। উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের হাজীপুর গ্রামের মমতাজ উদ্দিন মৌলভী আর রাশিদা বেগমের একমাত্র পুত্র ছিল আলাউদ্দিন। জন্মের দু’বছর পর ১৯৫৪ সালে মারা যায় শহীদ আলাউদ্দিনের বাবা।

 

 

প্রতিবাদী আর স্বপ্নচারী এ কিশোর হাজীপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং জুনিয়র মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পাঠ চুকিয়ে বিধবা মা আর একমাত্র বোনকে রেখে নবম শ্রেনীতে ভর্তি হয় বরিশাল একে স্কুলে। ’৬৯ এর উত্তাল দিনের ২৮ জানুয়ারি সকালে মায়ের কাছে লেখা চিঠি পোস্ট করতে গিয়ে, যোগ দিয়েছিলেন পাক স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষের মিছিলে। পকেটে রাখা রক্তে ভেজা সেই চিঠিসহ ২৯ তারিখ বিকাল চারটায় মায়ের কাছে ফেরত এসেছিল তার লাশ। গ্রামের বাড়িতে মায়ের চোখের সামনেই দাফন করা হয় তাকে। দাফনের পর থেকেই অযত্ন অবহেলায় পড়ে থাকে এ শহীদের কবর।

 

 

পাঁচ বছর আগে কবরটি বাধাঁই করা হলেও পারিবারিক অস্বচ্ছলতায় পালিত হয়না যথাযথভাবে মৃত্যুদিবস। রাজনৈতিক কিংবা সরকারিভাবে তাকে নিয়ে হয়না কোন স্মরনসভা। কেবলমাত্র ভাষা দিবসে স্থানীয় বিদ্যাপীঠের ছাত্র-ছাত্রীরা ফুলেল শ্রদ্ধায় স্মরন করে তাকে। যথাযথ ভাবে তাকে তুলে ধরা হয়নি ইতিহাসের পাতায়। শহীদ আলাউদ্দিনের পরিবার সূত্রে জানা যায়, ১৯৭০ সালে বন্যার পর দক্ষিণা লের মানুষের দুর্দশা নিজ চোখে দেখতে আসেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

 

 

সেদিন এই জনপদে বাঙালির মহানায়ক এসে প্রথমেই খোঁজ নেন ছাত্রলীগের কিশোর কর্মী আলাউদ্দিনের পরিবারের। বঙ্গবন্ধু তার মাকে পৌছে দেয়ার জন্য আলাউদ্দিনের ভগ্নিপতির হাতে দিয়েছিলেন পাঁচশত টাকা। দিয়েছিলেন একটি টিউবয়েল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতবার কলাপাড়ায় এসেছেন ততবারই খোঁজ নিয়েছেন এ পরিবারের। শহীদ আলাউদ্দিনের স্থানীয় সহপাঠী শামসুদ্দিন এবং বরিশালের এ্যাড. খান আলতাফ হোসেন ভুলু জানান, তিনি ওই সময় সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি ছিলেন।

 

তাঁরা তখন বরিশালে একটি সড়কের নামকরন করেছিলেন শহীদ আলাউদ্দিন সড়ক। বর্তমানে তাঁরা লেবুখালী সেতুর নাম শহীদ আলাউদ্দিন সেতু নামকরনের প্রস্তাবনা লিখিতভাবে সরকারের উপর মহলে দিয়েছেন।

 

 

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *










Facebook

Shares
© ভয়েস অব বরিশাল কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed BY: AMS IT BD
Shares