সাদিক আব্দুল্লাহকে নিয়ে শরিকদলের নানা কথা কি? |

শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৭:০৫ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ভয়েস অব বরিশালকে জানাতে ই-মেইল করুন- inbox.voiceofbarishal@gmail.com অথবা hmhalelbsl@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।*** প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে!! বরিশাল বিভাগের সমস্ত জেলা,উপজেলা,বরিশাল মহানগরীর ৩০টি ওয়ার্ড ও ক্যাম্পাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! ফোন: ০১৭৬৩৬৫৩২৮৩
সংবাদ শিরোনাম:
স্থগিত হওয়া পরীক্ষাগুলো দ্রুত গ্রহণের দাবিতে ববি শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন নগরীর চহঠা থেকে বিপুল পরিমান ইয়াবা ও গাজাসহ আটক ১ পুলিশকে সর্বক্ষেত্রে দায়িত্বশীল হতে হবে: বরিশাল ডিআইজি বরিশালে পরীক্ষা নেয়া সহ একদফা দাবীতে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ বিএম কলেজ শিক্ষার্থীরা বরিশালে খালি ট্রলি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে, প্রাণ গেল হেলপারের রাজাপুরে রাস্তা রেখে ইউএনও বহনকারী গাড়ি ময়লা পানিতে পটুয়াখালীর দশমিনায় বৃদ্ধকে বিয়ে না করায় বাড়ি ছাড়া চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী যেখানেই অসহায় মানুষ সেখানেই মানবিক পুলিশ জাহিদ ঝালকাঠিতে এক দোকান কর্মচারীকে হত্যার দায়ে তিনজনের যাবজ্জীবন কলাপাড়ায় সাবেক এমপি পুত্রের বিরুদ্ধে জমি দখল করে মাছের ঘের করার অভিযোগ




সাদিক আব্দুল্লাহকে নিয়ে শরিকদলের নানা কথা কি?

সাদিক আব্দুল্লাহকে নিয়ে শরিকদলের নানা কথা কি?




স্টাফ রিপোর্টার:একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ জোটের পরিধি বাড়ানোর প্রস্তাবে শরিক দলগুলো আপত্তি তুলেছে। শরিক দলগুলোর নেতাদের মতে, ১৪ দলীয় জোট সম্প্রসারণের প্রয়োজন নেই। কারণ, এটি একটি আদর্শিক জোট। ভোটের স্বার্থে জোটের পরিধি বাড়ালে আদর্শিক ‘স্পিরিট’ নষ্ট হবে। তবে ভোটকেন্দ্রিক সাময়িক বোঝাপড়ায় কোনও দলের সঙ্গে গেলে সেজন্য নির্বাচনি জোট মহাজোটই যথেষ্ট বলে মনে করছেন তারা।

ওই সভায় বরিশালের মেয়র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহকে নিয়ে আপত্তি তোলেন শরিক নেতারা। সেখানে কমিউনিস্ট কেন্দ্রের যুগ্ম আহ্বায়ক অসিত বরণ রায় বলেন, ‘রাজশাহী সিটি করপোরেশনে খায়রুজ্জামান লিটন ও সিলেটে বদরুদ্দিন কামরান আমাদের প্রার্থী। এ দুটি সিটিতে যোগ্য প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। তবে বরিশালের মেয়র প্রার্থী সাদিক আবদুল্লাহকে নিয়ে নানা কথা রয়েছে।’

তার এই বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তিনি জানতে চান, ‘বরিশালের প্রার্থী নিয়ে কী সেই নানান কথা? যিনি ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বজন হারিয়েছেন, স্বজনদের রক্তাক্ত ‘ডেড বডি’ মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখেছেন, তার তো পাগল হয়ে ঘুরে বেড়ানোর কথা।’ এরপর জোট নেতারা দাবি করেন, সাদিক আবদুল্লাহকে নিয়ে নেগেটিভ অর্থে বলেননি অসিত বরণ রায়।’

মঙ্গলবার (১৭ জুলাই) আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সভায় জোট সম্প্রসারণের প্রস্তাব উঠলে এতে আপত্তি তোলেন সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরো সদস্য আনিসুর রহমান মল্লিক, বাসদ একাংশের নেতা রেজাউর রহমানসহ কয়েকজন শরিক নেতা।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন এমন একাধিক নেতা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন এমন একাধিক নেতা জানান, দুপুর ১২টায় আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে জোটে অন্তর্ভুক্ত হতে আগ্রহী এমন কয়েকটি দলের সঙ্গে বৈঠকে বসার কথা জানান ১৪ দলীয় জোটের মুখপাত্র ও আওয়ামী লীগ সভাপতিম-লীর সদস্য, স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। ওই বৈঠকে ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার নেতৃত্বাধীন তৃণমূল বিএনপিসহ আরও দল থাকবে বলে জানা গেছে।

বুধবারের ওই সভায় ১৪ দলীয় জোটের নেতাদের থাকতে অনুরোধ জানান মোহাম্মদ নাসিম। তার এই প্রস্তাবের পরই শরিক দলের নেতারা জোট সম্প্রসারণের ব্যাপারে আপত্তি তোলেন। এ প্রসঙ্গে শরিক দলের নেতারা জানান, তারা বুধবারের বৈঠকে উপস্থিত থাকলেও ভোটকেন্দ্রিক জোটের পরিধি বাড়ানোর ব্যাপারে কোনও মত জানাবেন না।জানতে চাইলে ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা আনিসুর রহমান মল্লিক বলেন, ‘জোট সম্প্রসারণের ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে।

তবে শরিক দলের অনেক নেতাই জোট সম্প্রসারণের ব্যাপারে আপত্তি জানিয়েছেন। তবে নির্বাচন কেন্দ্রিক বোঝাপড়া হলে সেখানে আপত্তি থাকবে না তাদের।’

তিনি আরও বলেন, ‘যাকে-তাকে দিয়ে পরিধি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিলে ১৪ দলীয় জোটের যে আদর্শিক স্পিরিট, আছে তা নষ্ট হবে।’বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন শরিক দলের এমন এক নেতা বলেন, ‘‘বৈঠকে একাধিক নেতা কোটা আন্দোলন ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেছেন। জাতীয় পার্টির (জেপির) মহাসচিব শেখ শহিদুল ইসলাম কোটা নিয়ে আলোচনা উত্থাপন করলে আনিসুর রহমান মল্লিক, জাসদ একাংশের সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়াসহ কয়েকজন কোটা আন্দোলনকে বিরাট ষড়যন্ত্র বলে উল্লেখ করেন।

তারা বলেন, ইস্যুটি আমলাদের হাতে ছেড়ে দিয়ে নিশ্চিন্তে বসে থাকলে চলবে না। রাজনৈতিক হস্তক্ষেপে দ্রুত তা শেষ করতে হবে। শরীফ নুরুল আম্বিয়া বলেন, ‘কোটা আন্দোলনকে খোঁচা দিয়ে দিয়ে রাজনৈতিক ইস্যু করতে দেওয়া ঠিক হবে না। এটিকে রাজনৈতিক সিদ্ধান্তে মোকাবিলা করা উচিত। আমলাদের হাতে ঠিক করার দায়িত্ব থাকা ঠিক হবে না।’

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *










Facebook

Shares
© ভয়েস অব বরিশাল কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed BY: AMS IT BD
Shares