ইউপি সদস্য বাবু তালুকদার গিলে খেলেন মসজিদের টাকা গরীবের চাল Latest Update News of Bangladesh

শনিবার, ১৯ জুন ২০২১, ০৩:৪৩ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
Latest Update Bangla News 24/7 আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ভয়েস অব বরিশালকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] অথবা [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।*** প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে!! বরিশাল বিভাগের সমস্ত জেলা,উপজেলা,বরিশাল মহানগরীর ৩০টি ওয়ার্ড ও ক্যাম্পাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! ফোন: ০১৭৬৩৬৫৩২৮৩
সংবাদ শিরোনাম:




ইউপি সদস্য বাবু তালুকদার গিলে খেলেন মসজিদের টাকা গরীবের চাল

ইউপি সদস্য বাবু তালুকদার গিলে খেলেন মসজিদের টাকা গরীবের চাল




ভান্ডারিয়া প্রতিনিধি ॥পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া হতদরিদ্র ৭ নারীর ভিজিডি কার্ড আটকে রেখে চাল, মসজিদের টাকা, ঈদগার বরাদ্ধ, গৃহ নির্মানের চেকের টাকা আত্মসাতমহ বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে ধাওয়া ইউনিয়নের ইউপি সদস্যে ইবনে মাসুদ তালুকদার (বাবু) বিরুদ্ধে। সরকারী নিয়ম নীতিকে বৃদ্ধাঙ্গী দেখিয়ে উপজেলার ধাওয়া ইউনিয়নের ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের ভিজিডি কার্ড তালিকা ভুক্ত হওয়া ৭ হতদ্ররিদ্র নারীর চাল ওই ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়াডের্র ইউপি সদস্য ইবনে মাসুদ বাবু ভূক্তভোগি দরিদ্র নারীদেও কার্ড আটকে রেখেছেন ।

ফলে চাল বঞ্চিত ৭ নারী এ অনিয়মের প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগে জানাযায়, উপজেলার ধাওয়া ইউনিয়নের ৩নম্বর ওয়ার্ডের ভিজিডি কার্ডের তালিকায় থাকা হতদরিদ্র দিনমজুর হাদীসের স্ত্রী পারভীন বেগমের কার্ড নম্বর ১৫১, জাহাঙ্গীর হোসেনের স্ত্রী জরিনা বেগমের কার্ড নম্বর ১৫৬, রাশেদের স্ত্রী সুমী বেগমের কার্ড নম্বও ১৫৯, রাজ্জাকের স্ত্রী লাইলী বেগমের কার্ড নম্বর ১৬০, কালাম তালুকদারের স্ত্রী নাদিরা বেগমের কার্ড নম্বর ১৬৬, কাওসারের স্ত্রী পারুল বেগমের কার্ড নম্বর ১৭০, আল আমীনের স্ত্রী সীমা আক্তারের কার্ড নম্বর ১৭৪ সহ আরও অনেক অসহায় দুঃস্থ নারীর কার্ডের চাল বিতরণে স্থানীয় ইউপি সদস্য টালবাহানা করে আসছেন।

ফলে কার্ডধারি এসব দু:স্থ নারীরা চাল বঞ্চিত হচ্ছেন। এসব দু:স্থ নারীর কার্ড ইউপি সদস্যর পকেটে জমা রয়েছে বলে ভুক্তভোগিরা জানান। ভুক্তভোগি কার্ডধারি জরিনার স্বামী মো. জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, তিনি এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তাকে ৬/৭ মাস আগে অভিযোগ জানালেও কোন প্রতিকার মেলেনি। বারবার ইউপি সদস্য কাছে কার্ডের জন্য ধরনা দিয়েও কোন লাভ হয় নি। অপর একটি অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, ইউপি সদস্য ইবনে মাসুদ তালুকদার ইতিপূর্বে মন্ত্রীর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে গৃহনির্মানের জন্য ৫ হাজার টাকার একটি চেক, পূর্ব ধাওয়া খোকন তালুকদার বাড়ীর মসজিদের সংস্কারের নামে পিরোজপুর জেলা পরিষদ থেকে ১ লাখ টাকা, ধাওয়া একতা ক্লাবের নামে সোলার প্যানেল ও পূর্ব ধাওয়া ঈদগাহ মাঠের নামে মন্ত্রীর দেয়া অর্থ বরাদ্দের কাজ না করে সব আত্মসাৎ করা সহ গ্রামের সহজ সরল লোকদের কাজ থেকে বয়স্কভাতা ও বিধবা ভাতা দেওয়ার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য ইবনে মাসুদ তালুকদার বাবু অভিযোগ অস্বীকার বলেন, অভিযোগের বিষয় আমি কিছুই জানিনা সব বিষয় চেয়ারম্যান জানেন ।

তবে সোলার প্যানেলটি ক্লাবে না দিয়ে মসজিদের দেওয়া হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। এ বিষয়ে ভান্ডারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহীন আক্তার সুমী সাংবাদিকদের বলেন, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেল জানান।

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *










Facebook

Shares
© ভয়েস অব বরিশাল কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed BY: AMS IT BD
Shares