অভিশাপ্ত সেফু তুমি শত কোটি মুসলিমের হৃদয় রক্তক্ষত করেছ তোমার ক্ষমা নেই। Latest Update News of Bangladesh

মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:২৫ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
Latest Update Bangla News 24/7 আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ভয়েস অব বরিশালকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] অথবা [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।*** প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে!! বরিশাল বিভাগের সমস্ত জেলা,উপজেলা,বরিশাল মহানগরীর ৩০টি ওয়ার্ড ও ক্যাম্পাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! ফোন: ০১৭৬৩৬৫৩২৮৩




অভিশাপ্ত সেফু তুমি শত কোটি মুসলিমের হৃদয় রক্তক্ষত করেছ তোমার ক্ষমা নেই।

অভিশাপ্ত সেফু তুমি শত কোটি মুসলিমের হৃদয় রক্তক্ষত করেছ তোমার ক্ষমা নেই।




মাসুদ রানা : পবিত্র কোরআন পূর্ববর্তী কিতাবের ন্যায় আল্লাহ তা’য়ালা পাহাড়ে নাজিল করতে চেয়েছিলেন। পাহাড় বলল একটি আলিফ বহন করার ক্ষমতা আমার নেই। আমি তা হলে চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে যাব। যা একমাত্র রাসুল (সা:) এর ছিনায় ধারণ করতে পেরেছিল। যে শাশ্বতবাণী অবিশ্বাসীরা মেনে নিতে পারেনি। যা প্রচারে তায়েফের নির্যাতন সহ অযাচিত সাহাবা শাহাদাতের অমিয় পেয়ালা পান করেছেন। ওহুদের মাঠে ৭০ জন শাহাদাত প্রাপ্ত ছাহাবী তার জলন্ত দৃষ্টান্ত। অন্ধকারের অমানিশায় ডুবে থাকা হিদায়াতের আলো ছড়াতে ইসলামের ৫টি স্তম্ভের বেইজ হয়ে অকাতরে তারা জানকে কোরবান করেছেন। ওরা আমির হামজা (রা:) কলিজা খেয়েছে হোসাইন (রা:) মস্তক কেটেছে। যে রক্তের সিঁড়ি বেয়ে কোরআন আজ সম্মুন্নত হয়েছে পৃথিবী জুড়ে। যুগে যুগে এ কোরআনকে বিলিন করতে ইহুদী খ্রিষ্টানরা ষরযন্ত্র করে আসছে কিন্তু সে চক্রান্তে তারাই শেষ হয়েছে। সারা দুনিয়ায় রোজ গড়ে ৮ হাজার ৫ শত বিধর্মী মুসলমান হচ্ছে। যা দেখে তাদের মাথা খারাপ হয়ে গেছে। যে কারণে মুসমানদের সন্ত্রাসী ও হিং¯্র জাতি হিসেবে পরিচিতি করার পন্থা হিসেবে ঘৃনিত সন্ত্রাসী সংগঠন আই, এস ও বেকো হারাম তৈরি করেছে। এর মূল নেতা একজন ইহুদী যার নাম উলিয়াম শ্যামন। যিনি মুসলিম ছদ্ধবেসে আরবের একটি ঐতিহাসিক মসজিদে ১২ বছর ধরে ইমামতি ও মুসলমানদের ধোকা দিয়ে ইসলামের ভূল ব্যাখ্যাদিয়ে যুবকদের বিপদগামী করেছে।

সে তার নাম দিয়েছিল আবুবক্কর বোগদাদী। তার আসল পরিচয় ফাঁস হওয়ার পর সে একখন আত্মগোপনে রয়েছে। ইহুদী খৃষ্টানের দোসর হচ্ছে বাংলার ফেসুদা,তসলিমা,সালমানরুশদী, হুমায়ুন আজাদরা। লজ্জা গ্রন্থটি লিখে ইসলামের বিরুদ্ধে চক্রান্তকারী লবিস্টদের থেকে ৪৫ লাখ মার্কিন ডলার পেয়েছিল। যাতে পবিত্র কোরআনের কয়েকটি সুরার পরিবর্তন সহ নবী পরিবারকে বিষোদগার করা হয়েছে। বাংলার সবগুলো নাস্তিকের প্রায় লেখাই আমার সংগ্রহে রয়েছে। তারা এ গুলো মোটা অংকের টাকার বিনিময় লিখলেও দুনিয়ার কোথাও তারা শান্তিতে নেই। প্রতিনিয়ত অশান্তি হাতাশা আর মৃত্যুরছায়া তাদের দাবিয়ে বেড়াচ্ছে। যেখানে মুসলমান সে খানে তাদের জন্য আজরাইলের উপস্থিতি যেন বিরাজমান। ছালমানরুশদী বর্তমানে রাশিয়ার রাজনৈতিক আশ্রয় রয়েছে। সে খানে একবার স্টিডিয়ামে মুসলমান যুবকদের আক্রমনে শিকার হয়। একবার তসলিমা ভারতের কলকাতায় কঠিন মার খেয়ে রক্তাক্ত হয়।

এরা দুজনই একটি শাক্ষাৎকার দিয়েছিল জাহান্নাম শুনেছি তা নাকি আগুনের স্ফুলিংগে ভরা। সে আগুনের উষ্ণতা পৃথিবীতেই অনুভব করছি। কোথাও আমরা স্বস্তিতে পথচলা বা ঘুমাতে পারছিনা কখন যে মুসলমানদের অক্রমনের শিকার হই। পবিত্র কোরআন রাসুল (সা:) এর রওজা ও কাবা শরীফকে অবমাননাকারী ধর্মদ্রোহী ফেসুদা যে ভাবে বেইজ্জতি করেছে তার কোন ক্ষমা নেই। আল্লাহ ঘোষনা দিয়েছেন এ গ্রন্থের মালিক আমি এর হিফাজত কারীও আমি। কোথাও আগুনে সব পুড়ে গেলেও কোরআন অক্ষত থাকে। সম্প্রতি শত বছরের পুরানো ডুবে যাওয়া জাহাজে ডুবুরিরা গভীর সাগর থেকে অক্ষত কোন উদ্ধার করেছেন। এত বড় বিষয় তুমি ধাক্কা দিয়েছ যাতে সারা দুনিয়ার মুসলিমের হৃদয় রক্তক্ষত হয়েছে।

আল্লাহর গজব দেখলাম কোরআনে বর্ণিত ছামেরীর মত তোমার সারা শরীরে শত শত বিষাক্ত ফোরায় ছেয়ে গেছে। আল্লাহর কাছে কামনা করি তোমার যেন কবরের মাটিও না জোটে। যে কোন সময় ক্ষুধার্ত হায়না ও কুকুরের খাবারে পরিনত হও। তোমাকে যে মা বাবা জন্ম দিয়েছে তাদের ধিক্কার জানাই। তোমর নোংরা সন্ত্রাসী কথা গুলো আমার চরম বিশ্বাসে আঘাত করায় আমি একটুও ঘুমাতে পারিনি। তোমাকে কাছে পেলে জীবন্ত অবস্থায় বুক ফেরে দেখতাম তোমার কলিজাটা সৃষ্টিকর্তা কি দিয়ে সৃষ্টি করেছেন।

আমি মনে করি আবু জেহেল আবু লাহাব ফেরাউন নমরুদের চেয়েও নিকৃষ্টের তালিকায় তোমার নামটি নতুন করে যোগ হল। সারা দুনিয়ার মুসলমাদের যতœকরা লালিত যে পবিত্র বিষয় বস্তুকে নোংরা ভাষায় গালি দিয়েছ তা কোন মানুষ নামের প্রানীর ভাষা হতে পারেনা। আমার মনে হয় আদম হাওয়া (আ:) কে দাগা দেয়া সেই বড় শয়তানটি তোমার ওপর ভর করেছে। আয়নায় তোমার একবার চেহারাটা দেখে নিও মনে হয় যেন ডিসকোভারী চ্যানেলে দেখানো সমুদ্র তীরে আটকে যাওয়া বরসর কচ্ছপের মত।

তুমি মনে করেছ হয়ত মুসলামদের ইমান ঠুনকো একটু নাড়া দিলেই ভিত সহ উপরে যাবে, তুমি ভুল করছ। পৃথিবীতে এখনও কোটি কোটি সিংহ পুরুষ রয়েছে যারা কোরআন ও রাসুল (সা:) এর ভাল বাসায় অনুপ্রানিত হয়ে যে কোন প্রজ্জলিত শিখা ও রক্ত সমুদ্র পাড়ি দিতে প্রস্তত। তোমাকে আমি কি ভাষায় বৎসনা করব তা আমার জানা নেই। তুমি জানো কিনা জানিনা বৃটিশ আমলে রাসুল (সা:) কে কটাক্ষকারী রঙ্গীলা রাসুল লেখক ভোলানাথকে হত্যা করে ছিল ইমানদীপ্ত সামান্য দুই কিশোর সহোদর।

তোমার আচারন দেখে মনে হচ্ছে কিয়ামত খুব নিকটে। রাসুল (সা:) বলেন, খারাপ লোকগুলোর অশ্লীলতা আর অত্যাচারে কোরআন পুনরায় লাওহে মহ্ফুজে চলে যাবে ও কোরআনের সাদা পাতা পরে থাকবে। আর তোমার মত পশুর চেয়ে খারাপ লোকগুলো ওপর তখন কিয়ামত প্রতিষ্ঠিত হবে।

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *










Facebook

Shares
© ভয়েস অব বরিশাল কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed BY: AMS IT BD
Shares