দূর্ঘটনার দিকে তাকিয়ে রয়েছে নথুল্লাবাদ ট্রাফিক আইল্যান্ড |

মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৪:৩৭ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ভয়েস অব বরিশালকে জানাতে ই-মেইল করুন- inbox.voiceofbarishal@gmail.com অথবা hmhalelbsl@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।*** প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে!! বরিশাল বিভাগের সমস্ত জেলা,উপজেলা,বরিশাল মহানগরীর ৩০টি ওয়ার্ড ও ক্যাম্পাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! ফোন: ০১৭৬৩৬৫৩২৮৩




দূর্ঘটনার দিকে তাকিয়ে রয়েছে নথুল্লাবাদ ট্রাফিক আইল্যান্ড

দূর্ঘটনার দিকে তাকিয়ে রয়েছে নথুল্লাবাদ ট্রাফিক আইল্যান্ড

দূর্ঘটনার দিকে তাকিয়েও রয়েছে নথুল্লাবাদ ট্রাফিক আইল্যান্ড




নিজস্ব প্রতিনিধি ॥ বরিশাল নগরীতে বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় নগরীর জিলাস্কুল মোড়ে নিরাপদ ও যানজটমুক্ত সড়ক উপহার দিতে পথচারী, যানবাহন মালিক-চালক এবং সড়কের পাশের দোকান মালিক-কর্মচারীদের মাঝে খোলা চিঠি বিতরণ করেছে পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ।

 

এই সচেতনতা কার্যক্রম উদ্বোধন করেন মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের উপ-কমিশনার মো. জাকির হোসেন মজুমদার। যাতে তারা রাস্তার পাশে যেখানে-সেখানে যানবাহন রেখে যান চলাচলে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি না করেন।

 

প্রতিদিন সকাল থেকে বরিশাল ট্রাফিক পুলিশ জীবনের ঝুকি নিয়ে নগরবাসীকে যানজটমুক্ত সড়ক উপহার দিতে অক্লান্ত প্রিশ্রম করে যাচ্ছেন। অপর দিকে সারাদিন কঠোর প্রিশ্রম করেও হাসি মুখে বাসায় ফিরছেন তারা। নগরবাসীকে যানজটমুক্ত সড়ক উপহার দিতে গিয়ে বরিশাল ট্রাফিক পুলিশ কতটা নিরাপদ ? এমটাই মনে করছেন সচেতন মহল।

 

দেখে গেছে,নগরীর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল নথুলাবাদ গোল চত্তরে ( ট্রাফিক আইল্যান্ড) দারিয়ে দায়িত্ব পালন করা জীবনের ঝুঁকি হয়ে দারিয়েছে। ফলে যে কোনো সময় দায়িত্বরত পুলিশের (ট্রাফিক পুলিশ) বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে মনে করছেন একাধীক পুলিশ সদস্যরা। গোল চত্তরে ( ট্রাফিক আইল্যান্ড) চারপাশ ক্ষয়ে ক্ষয়ে পরে যাওয়া ইট গুলোর স্থান এখন চোঁখে পরার মত।

 

এমত অবস্থায় গোল চত্তরে চারপাশ মেরামত না করা হলে দূর্ঘটনার কবলে পরতে পারেন দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা। ব্যাস্ততম এই মহা সড়কে গোল চত্তর এখন মৃত্যুর ফাঁদ হয়ে দারিয়েছে। একদিকে যেমন নগরীর সুন্দর্য হারাতে বসেছে এই গোল চত্তরটি অন্য দিকে দূর্ঘটনার দিকে তাকিয়েও রয়েছে। গোল চত্তরটি নিয়ে মাথা ব্যাধা নেই কারো!

 

এ সময় ট্রাফিক বিভাগের উপ-কমিশনার মো. জাকির হোসেন মজুমদার বলেন, সবাইকে সর্তক করে দয়ো হয়েছে। বিপদ জনক অবস্থায় থাকা গোল চত্তরটিতে দারিয়ে ডিউটি করা কালিন সময় একটু সাবধানে কাজ করতে বলা হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *










Facebook

Shares
© ভয়েস অব বরিশাল কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed BY: AMS IT BD
Shares