রাস্তা নির্মানে বাঁধা ও রাস্তা সংস্কারের দাবীতে কাফন পড়ে আমরন অনশন ! Latest Update News of Bangladesh

মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০৬ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
Latest Update Bangla News 24/7 আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ভয়েস অব বরিশালকে জানাতে ই-মেইল করুন- [email protected] অথবা [email protected] আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।*** প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে!! বরিশাল বিভাগের সমস্ত জেলা,উপজেলা,বরিশাল মহানগরীর ৩০টি ওয়ার্ড ও ক্যাম্পাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! ফোন: ০১৭৬৩৬৫৩২৮৩




রাস্তা নির্মানে বাঁধা ও রাস্তা সংস্কারের দাবীতে কাফন পড়ে আমরন অনশন !

রাস্তা নির্মানে বাঁধা ও রাস্তা সংস্কারের দাবীতে কাফন পড়ে আমরন অনশন !




অনলাইন ডেস্ক:রাস্তা নির্মানে বাঁধা দেওয়ার প্রতিবাদে ও রাস্তা সংস্কারের দাবীতে কাফনের কাপড় পড়ে একটি কড়ই গাছের ৫০ ফুট চূড়ায় উঠে অনশন করে অভিনব প্রতিবাদ জানিয়েছে জহিরুল ইসলাম (২২) নামে এক যুবক।ঘটনাটি ঘটেছে রোববার (৩ মার্চ) গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানার কোনাপাড়া গ্রামে। পাগলা থানা পুলিশ ফায়ার সার্ভিস কর্মীদের সহায়তায় জহিরুল ইসলামকে গাছ থেকে নামিয়ে আটক করে থানায় নিয়ে এসেছে। জহিরুল পাগলা থানায় পুলিশ হেফাজতে আমরন অনশন করছে।

 

এলাকাবাসী, পাগলা থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, পাগলা সড়ক থেকে দত্তেবাজার ইউনিয়নের কোনাপাড়া গ্রাম হয়ে পাঁচুলী গ্রাম পর্যন্ত দেড় কিলোমিটার সড়কটি প্রস্থে ছোট হওয়ায় এবং সড়কটির বেহাল অবস্থার কারনে পাগলা কোনাপাড়া ও পাচুঁলী গ্রামের প্রায় এক হাজার মানুষের দুর্ভোগের শেষ ছিল না । মাত্র ৬/৭ ফুট প্রস্থ সড়কটি দিয়ে ভালভাবে একটি রিক্সাও চলতে পারে না। বর্ষা-বাদলের দিনে হাঁটু সমান কাদার মধ্যে দিয়েই ওই রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে হয়।

 

কম প্রস্থের এই সড়ক দিয়ে এই এলাকার রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিতে হাসপাতালে নিতে এবং কৃষকদের কৃষি পন্য বাজারজাত করতে অবর্নণীয় দুভোর্গে পোহাতে হয়। এলাকাবাসীর আবেদন-নিবেদনের প্রেক্ষিতে সরকারি পর্যায় থেকে এই রাস্তাটি প্রশস্ত করনের জন্য বেশ কয়েকবার উদ্যোগ নেওয়া হলেও এই এলকার কিছু চিহ্নিত লোকের বাঁধার কারনে রাস্তাটি সংস্কার ও প্রশস্তকরন সম্ভব হয়নি।

 

সম্প্রতি পাগলা কোনা পাড়া আর্দশ ক্লাবের উদ্যোগে এলকার যুব সমাজ রাস্তাটি নিজেদের অর্থে প্রশস্তকরনের কাজ শুরু করে। স্থানীয় দত্তেরবাজার ইউপি চেয়ারম্যান রোকসানা বেগমের সহযোগিতায় এই রাস্তার নামে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে কাবিটা প্রকল্প থেকে প্রাপ্ত অর্থ বরাদ্ধ হয়। কাবিটা প্রকল্পের অর্থ ও এলকাবাসীর স্বেচ্ছা অনুদান থেকে প্রাপ্ত অর্থ দিয়ে এই রাস্তাটি ১২ ফুট প্রশস্ককরন ও সংস্কারের কাজ পুরোদমে শুরু হয় গত ফেব্রুয়ারী মাসের প্রথম সপ্তাহে।

 

রাস্তাটি প্রশস্তকরনের সুবিধার্থে এলাকাবাসী তাদের প্রায় তিন শতাধিক গাছ কেটে নেয়। রাস্তাটির প্রশস্তকরন কাজ মাত্র একশ মিটার হওয়ার পর রাস্তার হালটে থাকা বড় দুইটি কড়ই গাছ নিজেদের দাবী করে গাছ কাটতে বাধা দেয় কোনাপাড়া গ্রামের বেলাল হোসেন(৬০) ও আবুল হাশেম (৫০) নামে দুই ব্যক্তি। ফেব্রুয়ারী মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে বন্ধ হয়ে যায় রাস্তা প্রশস্তকরন ও সংস্কার কাজ ।

 

এ নিয়ে গত দুই সপ্তাহে বেশ কয়েকবার দেন-দরবার, সালিশ-বৈঠক হয় । কিন্ত প্রভাবশালী আবুল হাশেম ও বেলাল হোসেন তাদের বাড়ির নিকটে থাকা রাস্তায় থাকা দুইটি কড়ই গাছ কাটতে বাধা দেয় এবং গাছ কাটতে এলে খুন করার হুমকি দেয়।। রাস্তা প্রশস্তকরন ও সংস্কারের কাজ আর শুরু করতে পারেনি এলাকাবাসী।

 

কড়ই গাছগুলো কেটে রাস্তার কাজ পুনরায় রাস্তার প্রশস্তকরন ও সংস্কার কাজ শুরু করার দাবীতে শনিবার গভীর রাতে কোনাপাড়া গ্রামের শাহাবুদ্দিনের ছেলে জহিরুল কাফনের কাফন বেঁধে একটি কড়ই গাছের প্রায় ৫০ ফুট উপরের ডালে উঠে আমরন অনশন শুরু করে। খবর পেয়ে রবিবার সকালে শত শত এলাকাবাসী কড়ইগাছ তলায় জমা হয়। জহিরুলের পরিবারের লোকজন ও এলাকাবাসীর শত অনুরোধ সত্বেও জহিরুল গাছ থেকে নামেনি।

 

এক পর্যায়ে পাগলা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। খবর দেওয়া হয় দমকল বাহিনীর কর্মীদের। দমকল বাহিনীর কর্মীদের সহায়তায় দুপুর ১২টার দিকে জহিরুলকে গাছ থেকে নামানো হয়। আটক করে পাগলা থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। শেষ খবর পাওয়া জহিরুল পাগলা থানায় আটক অবস্থায় আমরন অনশন করছে। গাছ কেটে রাস্তার কাজ পুনরায় শুরু না করলে সে অনশন ভাঙবে না বলে দাবী করছে।

 

 

পাগলা কোনাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা গনি মাষ্টার (৬৫), কামরুল ইসলাম করিম(৩৫),মাসুদ আকন্দ (৪৫), সাইফুল ইসলাম(৪৬), নজরুর আকন্দ (৪২) বলেন, এই রাস্তাটি পাগলা কোনাপাড়া ও পাচুঁলি গ্রামে এক হাজার মানুষের জন্য খুবই প্রয়োজন।

 

 

গত ২০ বছর ধরে একটি মহলের বাঁধার কারনে রাস্তাটি চলাচল উপযোগী বড় করা যাচ্ছে না। সহজ-সরল ছেলে জহিরুল আবেগের বশবর্তী হয়ে কাজটি করেছে। তারা জহিরুলের নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করছে।

 

এ ব্যাপারে দত্তেরবাজার ইউপি চেয়ারম্যান রোকসানা বেগম বলেন, এলাকাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে কোনাপাড়া গ্রামে রাস্তার কাজ শুরু হয়েছিল। একটি মহলের বিরোধিতার কারনে রাস্তার কাজটি বন্ধ হয়ে গিয়েছে । রাস্তার কাজটি পুনরায় শুরু করার দাবীতে জহিরুল এই কাজটি করেছে।

পাগলা থানার ওসি মোঃ শাহিনুজ্জামান বলেন, জিঙ্গাসাবাদের জন্য জহিরুলকে থানায় আটক রাখা হয়েছে।

 

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *










Facebook

Shares
© ভয়েস অব বরিশাল কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed BY: AMS IT BD
Shares