মেহেন্দীগঞ্জে চোখের সামনেই ছাই হলো আড়াই লাখ টাকা! |

মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৪:৫৯ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি :
আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি ভয়েস অব বরিশালকে জানাতে ই-মেইল করুন- inbox.voiceofbarishal@gmail.com অথবা hmhalelbsl@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।*** প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে!! বরিশাল বিভাগের সমস্ত জেলা,উপজেলা,বরিশাল মহানগরীর ৩০টি ওয়ার্ড ও ক্যাম্পাসে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে! ফোন: ০১৭৬৩৬৫৩২৮৩




মেহেন্দীগঞ্জে চোখের সামনেই ছাই হলো আড়াই লাখ টাকা!

মেহেন্দীগঞ্জে চোখের সামনেই ছাই হলো আড়াই লাখ টাকা!

মেহেন্দীগঞ্জে চোখের সামনেই ছাই হলো আড়াই লাখ টাকা!




মেহেন্দীগঞ্জ প্রতিনিধি॥ বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার পশ্চিম কেউটিয়া গ্রামে মহসিন সিকদার নামক এক ব্যক্তির বসতঘরে আগুন দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে বেঁচে গেছেন ওই পরিবারের ৭ সদস্য।

 

 

আগুনে নগদ প্রায় আড়াই লাখ টাকা এবং ১৪টি দলিল, স্বর্ণালংকারসহ ২০ লাখ টাকার মালামাল ছাই হয়েছে। ভেস্তে যেতে বসেছে জমি ক্রয়ের স্বপ্ন।

 

 

মহসিন বলেন, প্রতিদিনের মতো সোমবার রাতেও পরিবারের ৭ সদস্য খাবার খেয়ে ঘুমাতে যাই। গভীর রাতে ঘরের পশ্চিম কোণ থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এরপর ধোঁয়ার গন্ধ আসায় বিছানা থেকে উঠে টিন পিটিয়ে পরিবারের সকল সদস্যদের জাগিয়ে ঘর থেকে বের করি। এ সময় পার্শ্ববর্তী বাড়ির লোকজন টের পেয়ে তারাও ছুটে আসে। কিন্তু ধারেকাছে কোনো জলাশয় না থাকায় আমাদের চোখের সামনে ঘর ও ঘরে থাকা মালামাল ছাই হয়ে যায়।

 

 

তিনি আরও বলেন, ঘরে নগদ ২ লাখ ৩৮ হাজার টাকা ছিলো জমির দলিল করার জন্য। ওই টাকা পুড়ে গেছে। ২০০৫ সালে বসতঘরটি তৈরি করেন। ঘরের ভেতর ৩৫ মণ চাল, ফ্রিজ, স্টিল ও কাঠের আলমারি, খাট ও ২০টি মুরগিসহ বিভিন্ন ধরণের আসবাবপত্র ছিল। এছাড়া ১৪টি দলিল ও মেয়েদের ৩ ভরি স্বর্ণ, তাও পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

 

 

মহসিনের অভিযোগ, তার বসতঘরের এক একর জমি পার্শ্ববর্তী এলাকার আলতাফ হাওলাদার কিনতে চায়। তবে ২০০৫ সালে যে দরে কিনেছে, সে দর দিতে চায়। কিন্তু তাতে মহসিন রাজি নয়। সে বর্তমান দরে ওই জমি বিক্রি করতে আগ্রহী। এতে ক্ষুব্ধ ছিল আলতাফ।

 

 

এছাড়া মেয়ের জামাই নিজাম হাওলাদারের সাথেও বিরোধ রয়েছে মহসিনের। মহসিন জানান, নিজামের পরকীয়া সম্পর্ক তার মেয়ে ধরে ফেলে। এরপর এ নিয়ে বিরোধের সৃষ্টি হলে তিন সন্তানসহ তার মেয়েকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। তারাও হুমকি দিয়েছে। মহসিনের ধারণা, এদের মধ্যে কেউ পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটিয়ে থাকবে।

 

 

মহিসন বলেন, ২০০৫ সালে ৩ একর ৯৭ শতাংশ জমি কিনে সেখানে বসতঘরটি তুলে করে বসাবাস শুরু করেন। জমির মালিককে ৯ লাখ ১০ হাজার টাকা দেয়া হয়। আগামী সোমবার বাকি ২ লাখ ৩৮ হাজার টাকা দিয়ে দলিল করার কথা ছিল। এ কারণে ওই টাকা জোগাড় করে ঘরে রাখা হয়।

 

 

মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় ঘটনাস্থলে থাকা মেহেন্দীগঞ্জ থানার এসআই মো. মিজান বলেন, ঘরের রান্নাঘর থেকে আগুন লাগেনি, তা নিশ্চিত। ক্ষতিগ্রস্ত মহসিন স্থানীয় আলতাফ হাওলাদার ও মেয়ের জামাই নিজাম হাওলাদারকে অভিযুক্ত করেছেন। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *










Facebook

Shares
© ভয়েস অব বরিশাল কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed BY: AMS IT BD
Shares